ব্রেকিং

x

অবশেষে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের লোকমানের ভবষ্যিৎবাণীই সত্য হল ব্শ্বিকাপ ২০১৮ ফাইনাল খেলায় বিজয়ী ফ্রান্স

সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮ | ৩:৪১ অপরাহ্ণ | 626 বার

অবশেষে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের লোকমানের ভবষ্যিৎবাণীই সত্য হল ব্শ্বিকাপ ২০১৮ ফাইনাল খেলায় বিজয়ী ফ্রান্স

মৌলভীবাজাররে শ্রীমঙ্গলরে তুখোড় ফ্রান্স ভক্ত লোকমানের ভবষ্যিৎবাণীই সত্য প্রমাণিত হল। রোববার রাশয়িা ব্শ্বিকাপ ২০১৮ ফাইনাল খেলায় ৪-২ গলে বিজয়ী ফ্রান্স। শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়নের মন্দিরগাঁও গ্রামের লোকমান মিয়া নিজের জমানো টাকা দিয়ে ২০০ ফেস্টুন, বেনার, বিলবোর্ড তৈরী করে শ্রীমঙ্গল উপজেলাসহ মৌলভীবাজার, সিলেট, সেরপুরসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থানে লাগিয়েছেন। বিলবোর্ডে লেখা ছিল ‘‘ স্বাগতম বাংলাদেশ, রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপ এবার যাবে ফান্সের ঘরে’’। আর এই জীনিসগুলো করতে তার খরচ হয়েছে প্রায় ১ লক্ষ টাকা। এই টাকা গুলো তিনি গত চার বছরে জমিয়েছিলেন। কথা হয় লোকমান হোসেনের সাথে। ফ্রান্স ফুটবল দলের মহা ভক্ত লোকমান হোসেন বলেন, ফুটবল বিশ্বকাপে সকলে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা নিয়ে ব্যস্ত ছিল আর আমি ছোট বেলা থেকেই ফান্সের সাপোর্ট করে আসছি। আমার মনে হচ্ছিল এবার ফান্স বিশ্বকাপ ফুটবলে জয়ী হবে।আমার দলের বিজয় হয়েছে মানে আমার বিজয় হয়েছে। তিনি জানান, প্রতিটি বিলবোর্ড তৈরী করতে তার খরচ হয়েছে ৫০০ টাকা করে। স্বাগতম বাংলাদেশ লিখার কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট খেলায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে খেলে সারা বিশ্বের সকলের কাছে পরিচিত হয়ে উঠেছে। আমি আশা করছি আগামী বিশ্বাকাপে আমার দেশ বাংলাদেশ ফুটবল বিশ্বকাপে অংশ গ্রহন করে সারা বিশ্বের মানুষের কাছে বাংলাদেশও যে ফুটবল খেলতে পারে তা জানান দিবে। এ জন্য আমি আগে ভাগেই বাংলাদেশকে স্বাগত জানিয়েছি। আমি কোনো দিন ফ্রান্স দেখি নাই কিন্তু ফ্রান্সের খেলা দেখেছি,আমাকে মুগ্ধ করেছে তাই ফ্রান্স দলকে ছোট বেলা থেকে ভালবাসি। লোকমান হোসেন কোনোদিন ফ্রান্স যেতে চান না, তবে ফ্রান্স দলকে সব সময় মাঠে খেলতে দেখতে চান। লোকমান হোসেন পেশায় তিনি ইলেকট্রনিক্স মিস্ত্রি। তিনি মানুষের বাড়িতে গিয়ে বৈদ্যুতিক লাইট, ফ্যান ইত্যাদি লাগিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে।

Development by: webnewsdesign.com