ব্রেকিং

x

আনোয়ার কামাল-এর গুচ্ছ কবিতা

বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫:২৫ অপরাহ্ণ | 208 বার

আনোয়ার কামাল-এর গুচ্ছ কবিতা

ক্ষয়িষ্ণু নদীর মতো

এই দ্যাখ নদী কেমন শুকিয়ে ছোট হয়ে যাচ্ছে; ঠিক তুমিও ক্ষয়িষ্ণু নদীর মতো শুকিয়ে গ্যাছ। তোমার শরীরের অসংখ্য ভাঁজে ভাঁজে লুকিয়ে রাখা বেদনা উঁকি দেয় গোপন অভিসারে।

জলের মিনমিনে ধারায় বালির আস্তরণ বেড়ে যায়। বিরহী পাখীর বাসা- বিনিদ্র প্রহর কাটায়; কাশবনে লাঙলের ফলা চিরে যায় আবাদী শরীর। বেড়ে ওঠা দক্ষিণা হাওয়ায় ডিঙিগুলো মিহি জলের ধারা কেটে পথ করে। শুধু তুমি-আমি পথের দিশা খুঁজে ফেরি করি নৈঃশব্দ্যের চরাচরে।

বালুচরে কাশবনে মুখের ছায়ায় ধূসর বেদনা জাগাও। বিরহী চিলের গতর বয়ে পাখনা খসে পড়ে- কাশবন ভারি করে তোমার শাড়ির আঁচলে বাসা বাঁধে সাঁঝের জোনাকির ঝাঁক; ঝিঁঝির ডাকে আর পাখির গানে ভরে যায় গোধূলি বেলা।
#

হিরন্ময় নির্জনতা
[নিশাত খান শ্রদ্ধাভাজনেষু]

একবার তাঁকে ছুঁয়ে দেখি-
ভালোবাসার ডালি সাজানো।

হিরন্ময় নির্জনতায় এখন শেফালি ঝরে
টুপটাপ শিশিরের ফোঁটা বেদনায় কাঁদে।

মানুষ কী এমনই হয়-
ভালোবাসার হাতগুলো ছেড়ে দেয়।

আমি এখন নগ্নপায়ে কুয়াশায় ওম নেই
শেফালির প্রেমময় আহ্বানে সিক্ত হই।

তুমি কেবলই শীতল, হীম শীতল হয়ে
জেগে থাকো- প্রগাঢ় অপেক্ষায়।

#
আদম

ভোরের আকাশ এখন কাঁদছে
আযানের ধ্বনির সাথে বাতাসও কাঁদছে
গির্জা-মন্দির-প্যাগোডায় প্রার্থনায় নুয়ে পড়া
আদমের শরীর কেঁপে উঠচে-

মানুষ কত অমানবিক
মানুষ কত অবিবেচক
মানুষ কত আত্মঘাতি
মানুষ কত অমানুষ

আমার কান্না বারুদের আগুনে শুকিয়ে গেছে
আমার বেদনা পাথরে খোদাই করে রেখেছি
আমার চেতনা ক্রমশঃ ভোতা হয়ে যাচ্ছে
হে আদম- তুমি ফিরে দাঁড়াও-
হে আদম- তুমি ঘুরে দাঁড়াও-
হে আদম- তুমি মানুষের কাতারে দাঁড়াও-

বিবর্ণ সংলাপ

এখন আমরা গিরগিটির মতো রঙ বদলাচ্ছি
সকালে যে রঙ ধরে রাখি বিকালে তা খসে পড়ে
ধূলিঝড়ের আলোছায়ায়- মুখের রঙ বদলে যায়
বেধড়ক লাশ পড়ে যায় আনাচে কানাচে।

একে তুমি কী অভিধায় ব্যাখ্যা করবে;
মরমে গাঁথা আছে যে বেদনার নকশীকাঁথা
তাকে মানুষের মিছিলে নিয়ে এসো-

একবার আগুনের হলকাকে উসকে দিলে
লোভাতুর হায়েনার দাঁতগুলো খসে পড়বে
বেদনায় অতি বিবর্ণ গুটানো অগ্নিস্ফুলিঙ্গে।

#
কে তুমি

কে তুমি
নীরবে
গোপনে
কিছু বলতে চাও।

যে তুমি
সরবে
প্রকাশ্যে
শুধু চেয়ে রও।
#
বৃষ্টির ছোঁয়া

বৃষ্টি তুমি আমার ঠোঁট ছুঁয়ে যাও
হৃদয়ের সুপ্ত যাতনা ধুয়ে দাও।
#

কবি কবিতা ও রাজনীতি

কবিতা আর রাজনীতিতে মনোযোগী
এক যুবককে লেখাপড়ায় মনোযোগী
হতে বলেছিল এক যুবতী-

লেখাপড়া-রাজনীতি-কবিতা
কোনো আসরেই যুবক মনোযোগী হতে পারে নি
যুবক সব কিছু ধুলায় উড়িয়ে সেই নারীকেই শুধু চেয়েছিল

নারী তার কাছে অধরাই থেকে গেছে-
আর কবি-
এখনো সেই নারীকে ব্যবচ্ছেদ করে
#

Development by: webnewsdesign.com