ব্রেকিং

x

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুষ্টিয়ায় নির্বাচনী এলাকায় মাঠে নেমেছেন তরুন নেতারা

মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১২:৫০ অপরাহ্ণ | 1087 বার

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে  কুষ্টিয়ায় নির্বাচনী এলাকায় মাঠে নেমেছেন তরুন নেতারা

কেউ শিল্পপতি, কেউ প্রযুক্তিবিদ। আবার কেউ শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও আইনজীবি। তবে তারা সকলেই রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। এমন কিছু তরুণ নেতা এবার কুষ্টিয়ার নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন। উদ্দেশ্যে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হবেন তারা। এই তরুণ নেতারা মনে করছেন, বর্তমান যুগে উন্নত বিশে^র সাথে তাল মেলাতে হলে এবং দেশকে তুলে ধরতে হলে তরুণ নেতৃত্বের খুবই প্রয়োজন। তরুণ নেতৃত্বই পারে সব বাধা দূর করে দেশকে এগিয়ে নিতে।
এছাড়া দেশের প্রধান দুই দলের শীর্ষ নেতাদের বিভিন্ন সময়ের বক্তব্যে তরুণ নেতাদের মাঠে থাকার কথা বলায় তারা আরও উজ্জীবিত হয়েছেন।
কুষ্টিয়া-১ আসন দৌলতপুরে গত ছয় মাসের বেশি সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের বার্তা দৌলতপুরের সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করে আসছেন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য ও রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ড. মোফাজ্জেল হক। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ খুলনা বিভাগীয় শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. মোফাজ্জেল হক। দৌলতপুরের বাসিন্দা তরুণ এই নেতা একটি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। মোফাজ্জেল হক বলেন, শেখ হাসিনা তরুণ নেতাদের মাঠে কাজ করার কথা বলেছেন। সেই নির্দেশই পালন করছেন। তাঁর উন্নয়নের বার্তা সবার কাছে পৌছাতে কাজ চলছে। ড. মোফাজ্জেল হক শেখ হাসিনা সরকারের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি, ক্রীড়া, পরিবেশ, কৃষি, খাদ্য, টেলিযোগাযোগ, সংস্কৃতি, সামাজিক নিরাপত্তা, মানবসম্পদসহ বিভিন্ন উন্নয়ন তুলে ধরে প্রায় প্রতিদিনই পথ সভা ও লিফলেট বিতরণ করে চলেছেন দৌলতপুরে। তিনি সকলকে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহবান জানান সাধারণ মানুষের প্রতি।
কুষ্টিয়া-২ আসনে আওয়ামী লীগের শক্ত তরুণ প্রার্থী কামারুল আরেফিন মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। এই নেতা একই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। এই আসনে প্রথম বারের মতো আওয়ামী লীগের সাংসদ উপহার দিতে এবং জাসদকে ছাড় না দিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে তিনি প্রস্তুত। এই আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী রাগিব রউফ চৌধুরী। তিনি জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক। রাগিব চৌধুরীর বাবা প্রয়াত আবদুর রউফ চৌধুরী মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন।
কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনে জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক শামীম উল হাসান অপু একজন আইনজীবী। তরুণদের মধ্যে এই নেতার জনপ্রিয়তা রয়েছে। ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের মত অভিভজ্ঞাও আছে এ নেতার। তিনি বলেন, বিএনপির বর্তমান প্রেক্ষাপটে তরুণ নেতৃত্বের বিকল্প নেই। সেই কাজটা তিনি করে যাচ্ছেন। এছাড়া জেলা বিএনপির সদস্য ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিল্পপতি জাকির হোসেন সরকার আছেন মনোনয়ন দৌঁড়ে।
কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনে আওয়ামী লীগের দুজন তরুন নেতা এলাকায় প্রচারণায় নেমেছেন। এদের মধ্যে একজন শিল্পপতি আরেকজন প্রযুক্তিবিদ। খোকসা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বিটু এলাকায় যোগ্য নেতা বাছাইয়ের জন্য জনগণকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে কুমারখালীর বাসিন্দা জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবু বকর ইবনে সুফী ফারুক প্রতিটি গ্রামে গ্রামে গিয়ে তরুণদের নিয়ে পরামর্শ বিষয়ক ডিজিটাল সভা করছেন। সেসব সভা ফেসবুক লাইভে প্রচার করা হচ্ছে। তিনিও এই আসনে সাংসদ নির্বাচনে একজন সম্ভাব্য প্রার্থী।
তারা এলাকায় সরকারের উন্নয়ন নিয়ে কথা বলছে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে তরুনদের নিয়ে এলাকায় এগোতে চান তারা।

Development by: webnewsdesign.com