ব্রেকিং

x

কুমিল্লায় আবাহনীকে রুখে দিলো মোহামেডান

বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১ | ৫:৫৬ অপরাহ্ণ |

কুমিল্লায় আবাহনীকে রুখে দিলো মোহামেডান
সংগৃহীত ছবি

ফেডারেশন কাপে মোহামেডান স্পোর্টিংকে উড়িয়ে দিয়েছিল আবাহনী লিমিটেড। প্রিমিয়ার লিগেও একই ফলের অপেক্ষায় ছিলেন আবাহনী সমর্থকরা। কিন্তু কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে আবাহনীর জয়রথ থামিয়ে দিয়েছে শন লেনের দল। উড়তে থাকা আকাশি-নীল জার্সিধারিরা এবার ২-২ গোলে ড্র করেছে সাদা-কালোদের সঙ্গে।

দুইবার আগে গোল করেও মারিও লেমসের দল ম্যাচ জিততে পারেনি। তাতে আবাহনী চতুর্থ ম্যাচে এসে প্রথম ড্র দেখলো। তাদের পয়েন্ট ১০ আর সমান ম্যাচে দ্বিতীয় ড্রতে মোহামেডানের অর্জন ৫ পয়েন্ট।

বরাবরের মতো আবাহনীর সেটপিসে বড় ভয় ছিল মোহামেডানের। কুমিল্লার মাঠে অবশ্য সেই সেটপিস থেকেই দুই গোল পেয়েছে আবাহনী। জীবন-অগাস্তোকে ছাড়া ম্যাচের শুরু থেকে তাদের দাপট চলতে থাকে। তবে মোহামেডানও যে চোখ রাঙানি দেয়নি, এমনও নয়।

আবাহনী এগিয়ে যায় ১৪ মিনিটে। মাসিহ সাইগানির ফ্রি কিক হেড করে নামিয়েছিলেন বেলফোর্ট। সেখান থেকে ডাইভিং হেডে জাল খুঁজে নেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার তোরেস।

পিছিয়ে পড়ে মোহামেডান গোল শোধ দেওয়ার জন্য এর পর আক্রমণ শাণায় দ্রুত। সফলও হয় ১৭ মিনিটে। সাইফ স্পোর্টিং থেকে আসা জাফর ইকবালের ক্রস এক ডিফেন্ডার ফেরানোর পর তা পেয়ে যান নাইজেরিয়ান আবিওলা নুরাত।

এই মিডফিল্ডারের পাস আমির হাকিম বাপ্পীর পা হয়ে যায় গোলমুখে থাকা দিয়াবাতের কাছে, নিখুঁত ফ্লিকে লক্ষ্যভেদ করে মোহামেডানকে সমতায় ফেরান মালির এই স্ট্রাইকার। এর পরও ব্যবধান বাড়াতে চেষ্টা করতে থাকে ৬ বারেরর চ্যাম্পিয়নরা।

উল্টো ৩৩ মিনিটে এগিয়ে যায় আবাহনী। সাদউদ্দিনের লম্বা ফ্রি কিক বেলফোর্ট হেড করে নামিয়ে দেওয়ার পর তোরেসের শট গায়ে লেগে কোলিদিয়াতির। সেখান থেকে ফেরা বল যায় বাম দিকে থাকা জুয়েলের পায়ে। এর পর বাম পায়ের কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই ফরোয়ার্ড।

বিরতির পর খেলা আরও জমে ওঠে। শুরুতে আবাহনী আক্রমণে গেলেও একপর্যায়ে মোহামেডান দাপট দেখাতে শুরু করে। তাতে ৬৫ মিনিটে মোহামেডান আবার ম্যাচে সমতা এনে সমর্থকদের স্বস্তি উপহার দেয়।

হাবিবুর রহমান সোহাগের কর্নার থেকে উরু নাগাতার পা হয়ে নুরাতের শট ফিরে এসে ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে। জটলতার ভেতর থেকে সাইড ভলিতে সোলেমান দিয়াবাতে স্কোর করেন ২-২।

এর পর শেষ দিকে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে আবাহনী চেষ্টা করেও আরও ব্যবধান বাড়াতে পারেনি। কুমিল্লার হাজারো দর্শকদের উপস্থিতিতে শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়েই মাঠ ছেড়েছে দুই দল।

Development by: webnewsdesign.com