ব্রেকিং

x

কুলাউড়া উপজেলা নির্বাচনে সলমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত

মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯ | ১১:২২ পূর্বাহ্ণ |

কুলাউড়া উপজেলা নির্বাচনে সলমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যানসহ তিন পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের ফলাফল বেসরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে এই ফলাফল বিবরণী ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল লাইছ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আহসান ইকবাল, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জগলুল হায়দার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: আনোয়ার, কুলাউড়া থানার ওসি তদন্ত সঞ্জয় চক্রবর্তী।

বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের তিন বারের সাবেক চেয়ারম্যান, অধ্যক্ষ এ কে এম সফি আহমদ সলমান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীকে ৫৪ হাজার ৫২৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলাম পেয়েছেন ২৪ হাজার ১৬৯ ভোট। এ ছাড়াও আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী পৃথিমপাশা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নবাব আলী নকী খান দোয়াত কলম প্রতীকে পেয়েছেন ১৯ হাজার ১২ ভোট।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে কুলাউড়া উপজেলা আঞ্জুমানে আল-ইসলাহ’র সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মো. ফজলুল হক খান সাহেদ বই প্রতীকে ৩৫ হাজার ৭২৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আহবাব হোসেন রাসেল টিউবওয়েল প্রতীকে পেয়েছেন ২১ হাজার ১৪৮ ভোট।

এ ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে লংলা চা-বাগানের রাজ কুমার কালওয়ার চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ১৫ হাজার ৭৪৫ ভোট, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও কুলাউড়া পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অরবিন্দু ঘোষ বিন্দু তালা প্রতীকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৪৯৩ ভোট, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মান্না মাইক প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৯৬০ ভোট, কুলাউড়া পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলার মো. মতিউর রহমান মতই উড়োজাহাজ প্রতীকে পেয়েছেন ৪ হাজার ৫৪৭ ভোট, শরীফপুর ইউনিয়নের লালারচকের আব্দুল আহাদ টিয়া পাখি প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৩১ ভোট ও শাবিপ্রবি এর ছাত্র হুমায়ুন কবির শাহান পালকি প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ২২৬ ভোট।

উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি হাঁস প্রতীকে ৪৪ হাজার ৮০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কুলাউড়া পৌর জাসদ সভাপতি ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান নারীনেত্রী নেহার বেগম ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ৪১ হাজার ৮৩৭ ভোট। এ ছাড়াও আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী মোছা. শাহানা আক্তার কলস প্রতীকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৭৪২ ভোট।

Development by: webnewsdesign.com