ব্রেকিং

x

খুলনা সিটি নির্বাচনে অনিয়ম চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি ‘সুজনের’

বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৮:০১ অপরাহ্ণ | 780 বার

খুলনা সিটি নির্বাচনে অনিয়ম চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি ‘সুজনের’

খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে যেসব অনিয়ম ও ত্রুটি-বিচ্যুতি চিহ্নিত হয়েছে নির্বাচন কমিশন তা আমলে নেবে, এগুলোর ব্যাপারে পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করবে। প্রতিটি ঘটনার জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবে এবং সীমাবদ্ধতাগুলো কাটিয়ে ওঠার জন্য এখন থেকেই পূর্বপ্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে দাবি জানিয়েছেন নাগরিক সংগঠন (সুজন) সুশাসনের জন্য নাগরিক-এর নেতৃবৃন্দ।
গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘সুজন’-এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীদের তথ্য উপস্থাপন’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবিগুলো তুলে ধরে সংগঠনটি।
সংবাদ সম্মেলনে ‘সুজন’ নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুজনের সভাপতি এম হাফিজ উদ্দিন খান, সুজনের সাধারণ সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, সুজনের নির্বাহী সদস্য সৈয়দ আবুল মকসুদ এবং ড. তোফায়েল আহমেদ।
মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ‘সুজন’-এর কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার। লিখিত বক্তব্য উপস্থাপনকালে তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে ২০১৮ সাল নির্বাচনের বছর। আগামী ২৬ মে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। অক্টোবরের মধ্যেই রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হলে যে কোনো সময় ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদের উপনির্বাচনসহ ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৮টি করে মোট ৩৬টি নতুন ওয়ার্ডের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা অনুযায়ী আগামী ৩১ অক্টোবর ২০১৮ থেকে ২৮ জানুয়ারি ২০১৯- এর মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হবে। মানুষের মধ্যে এমন একটি ধারণা রয়েছে যে, ২০১৮-এর ডিসেম্বরেই হতে পারে এই নির্বাচন।
আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনগুলো সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশনকে জনমনে আস্থা সৃষ্টি করতে হবে। অন্যথায় জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতিগতভাবে আমরা নতুন সংকটের মুখোমুখি হতে পারি। যা আমাদের একটি অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ধাবিত করতে পারে।
আশা করি নির্বাচন কমিশন, সরকার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলেই তাদের চিহ্নিত ত্রুটিসমূহ সংশোধন করবে এবং আগামী নির্বাচনগুলো অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ তথা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে আয়োজন করবে।
সর্বোপরি খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে চিহ্নিত অপরাধ বিশ্লেষণ করে তাদের শাস্তি ও আগামী নির্বাচনগুলোতে নির্বাচন কমিশনের শক্তিশালী ভূমিকা ও কঠোর নজরদারি আশা করছেন সুজনের নেতৃবৃন্দ।

অর্থকাল /এসএ/খান

Development by: webnewsdesign.com