ব্রেকিং

x

আবারো বাড়ল চালের দাম

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৫:১২ অপরাহ্ণ | 26 বার

আবারো বাড়ল চালের দাম
ফাইল ছবি

রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের চালের বাজার আবারো অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে। গত দুই-তিন দিনের ব্যবধানে সব ধরনের চালের দাম কেজিতে ২ থেকে ৪ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। এ নিয়ে চলতি বছর চার দফা বাড়ল চালের দাম।

সংশ্লিষ্টরা বলছে, দেশে চাহিদার তুলনায় পর্যাপ্ত চালের মজুত থাকলেও মিলার বা মিল-মালিকদের কারসাজিতেই বারবার চালের দাম বাড়ছে। দেশে চালের সবচেয়ে বড় মোকাম কুষ্টিয়ার খাজানগর।

মিলগুলো চালের দাম বাড়লো এমন এক পরিস্থিতিতে, যখন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন মূল্য নির্ধারণ নিয়ে মিলমালিকদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করছে। শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এক দফা বৈঠকের পর গত রোববার দ্বিতীয় বৈঠক হয়। ওই বৈঠক চলাকালেই মিলগেটে বাড়তি দামে বিক্রি শুরু করে কয়েকটি চালকল।

এক সপ্তাহ আগে চালের দাম এক থেকে দুই টাকা কম ছিল। মূলত ব্যবসায়ীরা দেড় মাস ধরে ধাপে ধাপে চালের দাম বাড়িয়েছেন। যেমন গত মাসের শুরুতে সরু মিনিকেট চালের দাম ছিল প্রতি কেজি ৫০ টাকা। এরপর ৫ আগস্ট, ২২ সেপ্টেম্বর ও সর্বশেষ গত রোববার দাম কেজিপ্রতি এক টাকা করে বাড়ানো হয়।

কুষ্টিয়ায় চালের মূল্যবৃদ্ধির সরাসরি প্রভাব পড়ে সারা দেশে। কারণ, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা খাজানগর এলাকা দেশের চালের বড় মোকাম। দাম বাড়তে থাকায় গত বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন মূল্য পর্যালোচনার জন্য একটি কমিটি গঠন করে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) সিরাজুল ইসলামকে প্রধান করে গঠিত কমিটি শুক্রবার ও রোববার দুই দফা বৈঠক করে। এতে চালকল মালিক সমিতির প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

মিলমালিকেরা প্রথম বৈঠকে নানা যুক্তি দেখান। দাবি করেন, তারা ৭৫ শতাংশ ধান উত্তরবঙ্গ থেকে কিনে আনেন। এরপর রয়েছে উৎপাদন খরচ। সব মিলিয়ে যে ব্যয় দাঁড়ায়, তাতে প্রতি কেজি ৫৪ টাকার নিচে মিনিকেট চাল বিক্রি করা সম্ভব নয়। তবে জেলা প্রশাসন থেকে মিলগেটে মিনিকেট চালের দাম প্রতি কেজি ৫১ টাকার বেশি নেওয়া যাবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। তখন মিলমালিকেরা কোনো কিছু না বলেই বৈঠকস্থল ছাড়েন।

কমিটি গত রোববার আবারো বৈঠকে বসে। এতে চালকল মালিক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আবদুর রশীদসহ অন্তত ২০ জন মিলমালিক উপস্থিত ছিলেন। চার ঘণ্টা আলোচনার পর একটি মূল্য পর্যালোচনা প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। অবশ্য চালকলমালিকেরা সিদ্ধান্ত না মেনে আবারো বৈঠক ছেড়ে চলে যান।

এই সভা যখন চলছিল, তখনই মিলগেটে মিনিকেট চালের দাম কেজিপ্রতি এক টাকা বাড়ানো হয়। গতকাল সোমবার কুষ্টিয়া পৌর বাজারে গিয়ে বাড়তি দামে চাল বিক্রি করতে দেখা যায়। কুষ্টিয়অর বাজার পর্যবেক্ষণ কর্মকর্তা রবিউল ইসলামও মূল্য বেড়েছে বলে জানান।

Development by: webnewsdesign.com