ব্রেকিং

x

তিন বছরে দৃশ্যমান পুরো পদ্মা সেতু

বৃহস্পতিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২০ | ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ |

তিন বছরে দৃশ্যমান পুরো পদ্মা সেতু
ছবি: সংগৃহীত

ছবিতে প্রদর্শিত এই দৃশ্য দেখার কথা ছিল ২০১৩। দেরি হল তবুও স্বপ্নকে সত্যি করলো বাংলাদেশ । স্বপ্নযাত্রা শুরুটা বহুআগের, ১৯৮৯-১৯৯৯ সালের। তখন প্রমত্তা পদ্মা সেতু নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই করে শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। ২০০৮ সালের আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে ছিল পদ্মা সেতুর প্রতিশ্রুতি । ২০১১ সালে এগিয়ে আসে বিশ্ব ব্যাংক, ১২০ কোটি ডলার দিতে চায় সংস্থাটি। জাইকা ৪০ কোটি, এডিবি ৬২ কোটি আর ১৪ কোটি ডলার অর্থ সহায়তা দেয়ার চুক্তি করে ইসলামিক উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি)।

সেতু নির্মাণের কাজ পায় কানাডীয় কোম্পানি এসএনসি-লাভালিন । কিন্তু কাজ শুরুর আগেই হোঁচট খায় পদ্মা সেতু প্রকল্প। দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে ২০১২ এর জুনে অর্থায়ন থেকে সরে আসে উন্নয়ন সংস্থাগুলোর।


এরপর পরের মাসে নিজস্ব অর্থায়নে সেতু নির্মাণের ঘোষণা দেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


২০১৩-১৪ অর্থবছরে পদ্মা সেতুর জন্য ৬,৮৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয় বাজেটে। শুরু হয় আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম।

মূল সেতু নির্মাণের কাজ পায় চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন কোম্পানি।

২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় সেতুর নির্মাণ যাত্রা। নদীর বুকে পদ্মা সেতু প্রথম দৃশ্যমান হয় ২০১৭ সালের ৩০ শে সেপ্টেম্বর।

এদিন ৩৭-৩৮ নম্বর খুটির উপর স্প্যান বসান প্রকৌশলী এবং শ্রমিকরা।

সময়ের সাথে দীর্ঘ হয়েছে সেতুর অবয়আপ। শুরুতে পদ্মা সেতু তৈরিতে খরচ ধরা হয়েছিল ২০ হাজার ৫০৭ কোটি ২০ লাখ টাকা।

এখন ব্যয় ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা । মূল সেতুর সঙ্গে সংযোগ সড়ক ও সার্ভিস এরিয়ার কাজ আগেই শেষ হয়েছে । আর পুরো সেতুর সার্বিক অগ্রগতি সাড়ে ৮২ শতাংশ।

সরকার আশা করছে আগামী ডিসেম্বরে সেতুতে গাড়ি চলবে আর এই সেতুর নিচে দিয়ে চলবে রেল । যা চালু হতে লাগবে আরো তিন বছর।

Development by: webnewsdesign.com