ব্রেকিং

x

দেশের উন্নয়নে তরুনদের এগিয়ে আসার আহবান রূপালী ব্যাংকের এমডি’র

বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৭:১৬ অপরাহ্ণ | 161 বার

দেশের উন্নয়নে তরুনদের এগিয়ে আসার আহবান রূপালী ব্যাংকের এমডি’র

রূপালী ব্যাংকের অর্থায়নে নির্মিত সম্পূর্ণ আধুনিক সুবিধা নিয়ে চালু হয়েছে এলকো ওয়্যারস এন্ড কেবলস লিমিটেড। গাজীপুরের শ্রীপুরে এলকো ওয়্যারস এন্ড কেবলসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ। অনুষ্ঠানে সভাপতি ছিলেন এলকো কেবলসের চেয়ারম্যান রনদীপ দাসগুপ্ত, ম্যানেজিং ডিরেক্টর তারেক মাহমুদসহ, রূপালী ব্যাংকের জিএম শফিকুল ইসলাম, আবদুর রহিমসহ ব্যাংক ও এলকো কেবলসের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ বলেন, দেশের উন্নয়নে তরুণদেরও এগিয়ে আসতে হবে। দেশের উন্নয়নে তরুন সমাজের ভুমিকা সবসময়ই উল্লেখযোগ্য। দেশের উন্নয়নে এবং এদেশের ব্যবসায়ীদের উন্নয়নে রূপালী ব্যাংক কাজ করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও দেশের উন্নয়নে ব্যবসায়ীদের পাশে আমরা থাকবো। বাকীতে মাল বিক্রির ফলে অনেক সময় ব্যবসায় লোকসান হয়, ফলে শুধু খেলাপী ঋন নিয়ে কথা বললেই হবে না। হাজার হাজার ব্যবসায়ী বিলীন হয়ে যাচ্ছে শুধু বাকীতে মাল বিক্রির কারনে। কারন বাকীতে পন্য নেয়ার পরে অর্থ ফেরত না দিলে তাদেরকে আইনের ফাক ফোকরের কারনে ধরা যায় না। বাকী বা ট্রেড ক্রেডিট থেকে বের হওয়ার জন্য এ নিয়ে ভাবতে হবে। এই সমস্যা থেকে উত্তরনের জন্য ব্যবসায়ীদের জন্য ‘চেইন ল্যান্ডিং’ নামে আমরা রুপালী ব্যাংক নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে আসছি।এই প্রোডাক্টের মাধ্যমে ট্রেড ক্রেডিটের সমস্যা অনেকটাই সমাধান হবে।

ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ আরও বলেন, সারা বিশ্বে এ পর্যন্ত ৮৫ শতাংশ অগ্নিকান্ড হয়েছে শর্ট সার্কিট এর কারনে। আর শর্ট সাকির্টের বেশিরভাগই হয়ে থাকে ক্যাবলসের গুনগত মানের দিক থেকে দুর্বল হলে। সেক্ষেত্রে আমি মনে করি এলকো ক্যাবলস গুণগতমান বজায় রেখে বাজারজাত করবে। কারন আমি নিজে এই প্রতিষ্ঠানের পন্য উৎপাদনের বিভিন্ন প্রযুক্তি নিজের চোখে ঘুরে দেখেছি। তাছাড়া এই কোম্পানি যদি মার্কেটের ১০ শতাংশ শেয়ার দখলে নিতে পারে তাহলে এই কোম্পানি অনেক দূর সফলতা অর্জন করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয় যাত্রা শুরুর তিন বছরের মধ্যেই ৭ হাজার ৩০০ কোটি টাকার কেবলসের বাজারের ১৫ শতাংশ দখলের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ৩১২ শতাংশ জমির উপর স্থাপিত প্রকল্পটি নির্মাণে ব্যায় হয়েছে ৭৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ব রূপালী ব্যাংক ৩৫ কোটি টাকা অর্থায়ন করেছে।

Development by: webnewsdesign.com