ব্রেকিং

x

বেসরকারিভাবে আইভী জয়ী

রবিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২২ | ৮:২৫ অপরাহ্ণ |

বেসরকারিভাবে আইভী জয়ী
ফাইল ছবি

টানা তৃতীয়বারের মতো নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) মেয়র নির্বাচিত হলেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। বেসরকারি ফলাফলে নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী তৈমুর আলম খন্দকারের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি ভোট পেয়ে বিজয় নিশ্চিত করেছেন তিনি।

আজ রোববার উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। ইভিএম নিয়ে যান্ত্রিক ত্রুটি এবং কিছু ভোটারের প্রযুক্তিভীতির কারণে কিছুটা ভোগান্তি হলেও শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট গ্রহণ ও গণনা শেষ হয়েছে। এবারই প্রথম নাসিক নির্বাচনে শতভাগ ইভিএম ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই ফলাফল ঘোষণা শুরু করতে পেরেছে নির্বাচন কমিশন।

বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী (নৌকা) পেয়েছে ১ লাখ ৬১ হাজার ২৭৩ ভোট, আর তাঁর নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির অব্যাহতিপ্রাপ্ত নেতা তৈমুর আলম খন্দকার (হাতি) পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৭১ ভোট।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ভোট পড়েছে প্রায় ৫০ শতাংশ।

সকাল থেকেই ভোটের পরিবেশ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রার্থীরা। কোথাও সহিংসতার কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এটিই ছিল বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদে সর্বশেষ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। এ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশন মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘এটি ছিল আমার অনেক প্রত্যাশার স্থান। কারণ, আমি ইতিপূর্বে বলেছি, যার শেষ ভালো, তার সব ভালো। নাসিক নির্বাচনে আমি ৪টি কেন্দ্রের ১৪টি বুথ পরিদর্শন করেছি। এই নির্বাচনে উল্লেখযোগ্য কোনো সংঘর্ষ ও সন্ত্রাসের ঘটনা ঘটেনি। বিগত ৫ বছরে যত সিটি করপোরেশন নির্বাচন হয়েছে, আমার বিবেচনায় আমাদের প্রথম কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও সর্বশেষ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন সর্বোত্তম।’

এদিকে নাসিক নির্বাচনের প্রধান দুই প্রার্থী আওয়ামী লীগের সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং বিএনপির অব্যাহতিপ্রাপ্ত নেতা তৈমুর আলম খন্দকার হলেও আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

শুরু থেকে দলীয় প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া না দেওয়া নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও শেষ সময়ে এসে সংবাদ সম্মেলন করে নৌকার পক্ষে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন শামীম ওসমান। আজ ভোটের দিনও শেষ মুহূর্তে এসে ভোট দিয়েছেন তিনি।

Development by: webnewsdesign.com