ব্রেকিং

x

ভাঙছে ট্রাম্প-মেলানিয়ার সংসার!

সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১ | ৭:০২ অপরাহ্ণ | 34 বার

ভাঙছে ট্রাম্প-মেলানিয়ার সংসার!
সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সাবেক ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের সাংসারিক জীবনের শেষ দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর কয়েকটি অনুষ্ঠানে সাবেক এই প্রেসিডেন্টকে দেখা গেলেও সেখানে মেলানিয়ার অনুপস্থিতি এই গুঞ্জনে ডালপালা ছড়িয়েছে।

webnewsdesign.com

গত ২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউস থেকে বিদায় নেওয়ার পর ফ্লোরিডার দক্ষিণাঞ্চলের মার-অ্যা-লাগো রিসোর্টে ওঠেন এই দম্পতি। একই দিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন জো বাইডেন। এর আগেও বেশ কয়েকবার ট্রাম্প দম্পতির বিচ্ছেদের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছিল। কিছুদিন আগে বিচ্ছেদের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মেলানিয়া ট্রাম্প একটি নতুন অফিস খুলবেন বলে কিছু গণমাধ্যম খবর দেয়। যদিও এখনও এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি একটি সুপার বোল পার্টিতে ট্রাম্প অংশ নিলেও মেলানিয়াকে দেখা যায়নি। এটিকেও অনেকে এই দম্পতির বিচ্ছেদের লক্ষণ হতে পারে বলে বর্ণনা করেন। সম্পর্ক বিশারদ ও হাউ টু বি হ্যাপি ইন লাইফ অ্যান্ড লাভ বইয়ের লেখক প্যাসকেল লেন বলেন, পার্টিতে দু’জনের অংশ না নেওয়াটা তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার একটি লক্ষণ। শিগগিরই তাদের বিচ্ছেদ ঘটতে পারে।

সম্পর্ক বিশারদরা বলেছেন, তাদের ধারণা— মেলানিয়া এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প পৃথক হয়ে যেতে পারেন।

ব্রিটেনের ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারকে তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প মেলানিয়ার বিয়ে-বিচ্ছেদ নিয়ে বছরের পর বছর ধরে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। তাদের এই বিয়ে নিয়ে অনেক বিতর্কও হয়েছে। মেলানিয়া শুধু অর্থের জন্য ট্রাম্পকে বিয়ে করেছেন, নাকি তাদের মধ্যে গোপন কোনও চুক্তি আছে? এ ধরনের নানা প্রশ্ন মানুষের মুখে ভেসে বেড়ায়।

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউসে অভিষেকের পর ট্রাম্প দম্পতির বিয়ে নিয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। সেই সময় অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, এটা তাদের চুক্তি নাকি প্রেম।

প্যাসকেল লেন বলেন, মেলানিয়া ট্রাম্প বিভিন্ন সময় তার স্বামীর প্রতি বিরক্তি প্রকাশ করেছেন; যা দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমের অনেক ছবি ও ভিডিওতে ধরা পড়ে। এছাড়া নারীদের প্রতি ট্রাম্পের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রচুর আলোচনা হয়।

তিনি বলেন, আমার ধারণা— ট্রাম্পের মতো একজন মানুষকে তালাক দেওয়ার পর প্রচলিত জীবনধারার বাইরে গিয়ে মেলানিয়াকে বসবাস করতে হবে। সাবেক এই ফার্স্ট লেডি সেই অপ্রচলিত জীবনযাত্রার অভ্যাস গড়ছেন। এটা ভুলে গেলে চলবে না যে, তিনি (মেলানিয়া ট্রাম্প) ২০০৫ সালে বিয়ে করেছেন।

লেখক প্যাসকেল লেন বলেন, তিনি বিচ্ছেদের জন্য অনেক কিছু করছেন; এটি বলার এখনও ভালো সুযোগ আসেনি। কিন্তু আমার সন্দেহ, মেলানিয়া এমন একজন নারী যিনি পছন্দ অনুযায়ী নিজের কাজ করেন। তবে আমি ধারণা করতে পারি যে, তারা অনেক বছর ধরেই আলাদা জীবন-যাপন করছেন।

এখন আমরা যে প্রশ্নটি করতে পারি সেটা হলো— তারা কি আইনিভাবে আলাদা হয়ে যাবেন নাকি এখন যে অবস্থায় আছেন তেমনই থাকবেন? থেরাপি ডট সিও ডট ইউকের প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পর্ক বিশারদ এমা ডেভি বলেন, ‘অদূর ভবিষ্যতে এই দম্পতি আলাদা হয়ে যেতে পারেন।’

২০০৫ সালে ট্রাম্পের সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া স্লোভেনিয়ান বংশোদ্ভূত সাবেক মডেল মেলানিয়া এর আগে বলেছিলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তার দুর্দান্ত সম্পর্ক রয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প মেলানিয়ার চেয়ে বয়সে ২৪ বছরের বড়। তিনি জোর দিয়ে বলেছিলেন যে, তাদের মধ্যে কখনও তর্ক-বিতর্ক হয় না।

গত বছর ট্রাম্পের সঙ্গে বিচ্ছেদের তীব্র গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ার পর মুখ খুলেছিলেন মেলানিয়া ট্রাম্প। সে সময় তিনি বলেছিলেন, বিচ্ছেদের গুঞ্জন অত্যন্ত মর্মপীড়াদায়ক।-ঢাকা পোস্ট

Development by: webnewsdesign.com