ব্রেকিং

x

শীতে যত্নে থাকুক চুল

মঙ্গলবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ৯:৩১ অপরাহ্ণ |

শীতে যত্নে থাকুক চুল
ফাইল ছবি

চুলে এ সময় বাড়তি শুষ্কতা ও রুক্ষতা আসে। এ সময় চুলের আগা ফেটে যাওয়া অথবা চুল ভেঙে যাওয়ার সমস্যা বেশি হয়। এ সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে জাঁকিয়ে শীত পড়ার আগে চুল ট্রিম করুন। এতে শীতে একটা নতুন লুক আসবে। আর সঙ্গে থাকবে স্বাস্থ্যকর চুল। বাইরে বের হলে পাতলা কাপড় দিয়ে চুল ঢেকে রাখতে পারেন। তাতেও নতুন লুক আসতে পারে। ছেলেরাও চুল রক্ষায় পাতলা কাপড়ের হুডি ব্যবহার করতে পারেন।
Hair care1

শীতে গোসল করার প্রতি একধরনের ভীতি থাকে। নিয়মিত গোসল না করলে চুলে খুশকি ও উকুন হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সপ্তাহে তিন দিন শ্যাম্পু করুন চুলের ধরন অনুযায়ী। ত্বকের মতো চুলেরও ময়েশ্চারাইজার প্রয়োজন। চুলের বেলা সেটা কন্ডিশনার। চুল ধোয়ার ২০ মিনিট আগে কোনো প্রাকৃতিক তেল দিয়ে তারপর শ্যাম্পু করুন। এতে মাথার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। তবে সময় না থাকলে অন্য ব্যবস্থাও নিতে পারেন। চুল ধোয়ার পর কন্ডিশনার বা হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন। তবে সেটি চুলের গোড়ায় না দিয়ে এক সেন্টিমিটার দূরে ব্যবহার করে ৩-৪ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। চুলের যত্নে এটি ভালো কাজ করে।
Hair care2

খুশকি যাঁদের আগে থেকেই আছে, তাঁদের শীতে এ সমস্যা আরও বেড়ে যায়। শীতের সময় অনেকে আলসেমি করে চুল ধুতে চান না। এতে খুশকি বেড়ে যাওয়া থেকে শুরু করে আরও বিভিন্ন ক্ষতি হয়। অনেক সময় কন্ডিশনার ভালোভাবে পরিষ্কার না হলেও খুশকি হয়। কিছু রোগের ক্ষেত্রেও খুশকি বেড়ে যেতে পারে। আর যাঁদের ত্বক শুষ্ক, তাঁদের ক্ষেত্রে খুশকি স্বাভাবিকভাবেই বেড়ে যায়।

খুশকির ক্ষেত্রে সপ্তাহে তিন দিন মেডিকেটেড শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী কিটোকোনাজল বা জিংক অথবা স্যালেনিয়াম সালফাইডযুক্ত কোনো শ্যাম্পু ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন। আর যদি খুশকির প্রবণতা আগে থেকেই থাকে, কিন্তু খুশকির পরিমাণ বেশি না হয়, সে ক্ষেত্রে প্রতি সপ্তাহে এক দিন করে অ্যান্টিডেনড্রাফ শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

ডা. তাওহীদা রহমান ইরিন
লেখক: ডার্মাটোলজিস্ট, শিওর সেল মেডিকেল বাংলাদেশ।
– আজকের পত্রিকা।

Development by: webnewsdesign.com