ব্রেকিং

x

শ্রীমঙ্গলে আলো ছড়াচ্ছেন কটিয়াদীর সন্তান ইউএনও নজরুল ইসলাম

সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১ | ৫:২৪ অপরাহ্ণ |

শ্রীমঙ্গলে আলো ছড়াচ্ছেন কটিয়াদীর সন্তান ইউএনও নজরুল ইসলাম
ফাইল ছবি

অদম্য ইচ্ছাশক্তি ও অক্লান্ত পরিশ্রম আর মানুষকে ভালবাসা দিয়ে শ্রীমঙ্গলে আলো ছড়াচ্ছেন মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম।

২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তিনি শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদে যোগ দেন। কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলায় জন্ম নেয়া নজরুল ইসলাম ১৯৯৮ সালে চাতল বাগহাটা স্কুল ও কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে এসএসসি এবং ২০০০ সালে মনোহরদী উপজেলার খিদিরপুর কলেজ থেকে স্টার মার্কস পেয়ে এইচএসসি পাস করেন। ২০০৬ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগ থেকে স্নাতক এবং ২০০৮ সালে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। ২০১৩ সালে ৩১তম প্রশাসন ক্যাডারে নোয়াখালীতে সহকারী কমিশনার হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন। পরে ঢাকা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় এসিল্যান্ড এবং ২০১৮ সালে সিনিয়র সহকারী সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আদিবাসি অধ্যুষিত শ্রীমঙ্গলে খাসি, গারো, মান্দী, পাঙন, মৈতি, মনিপুরী ও সাদ্রী গোষ্ঠীসহ শতাধিক ক্ষুদ্র নৃ-তাত্বিক জাতিগোষ্ঠীর বসবাস। তাদের রয়েছে নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি। ইতিমধ্যে অনেক ভাষা হারিয়েও গেছে। শ্রীমঙ্গলের ক্ষুদ্র এসব জাতিগোষ্ঠীর হারিয়ে যাওয়া ভাষা সংরক্ষণে প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে তিনি নানা উদ্যোগ গ্রহন করেন। তিনি বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ওইসব জাতিগোষ্ঠীর ভাষা সম্বলিত নানা পুস্তিকা সংগ্রহ ও পড়ার উপযোগী করে প্রকাশের ব্যবস্থা করেন। পরে ৭৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১০টি বেসরকারি বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের নিজের ভাষায় লেখাপড়ার সুযোগ করে দিতে এসব বই উপহার দেন। এভাবে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষা ও জীবনমান উন্নয়নে নানা উদ্যোগ বাস্তবায়ন করে সুবিধাবঞ্চিত পাহাড়ী জনপদে আলো ছড়িয়ে দেন।

এবছর দেশে প্রধানমন্ত্রীর উপহার গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর দেয়ার আলোচিত আশ্রায়ন প্রকল্প চালু হয়। শ্রীমঙ্গলে এই আশ্রায়ন প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন করায় তিনি প্রধানমন্ত্রীসহ দেশবাসীর নজরে আসেন। এখানকার আশ্রায়ন প্রকল্পের মজবুত অবকাঠামো সারাদেশের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে তার নেতৃত্ব ও সঠিক ব্যবস্থাপনা প্রশংসিত হয়।

করোনা মোকাবেলায় সংক্রমণ বিধি পরিপালন, মানুষকে ঘরে রাখা, সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক পড়া থেকে শুরু করে কর্মহীন ও দরিদ্র মানুষকে খাদ্য সহায়তায় মাঠ পর্যায়ে নানামূখী পদক্ষেপ গ্রহন করেন। নজরুল ইসলাম চলতি ২০২১ সালে মৌলভীবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হন।

নজরুল ইসলামের বাবা মো. হাবিবুর রহমান অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা। মা আম্বিয়া বেগম ২০১৬ সালে ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ কার্যক্রমে কিশোরগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হন। পাঁচ ভাই ও পাঁচ বোনের মধ্যে দুই ভাই মো. মাহবুবুর রহমান ও মো. মোস্তাফিজুর রহমান স্কুল শিক্ষক। আরেক ভাই মো. জাহাঙ্গীর হোসেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে ঢাকা এবং স্ত্রী রোজিনা খান অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। কনিষ্ঠ ভাই আনিসুর রহমান উজ্জ্বল কিশোরগঞ্জে আইন পেশায় নিয়োজিত। ৫ বোনের মধ্যে একজনের স্বামী স্বাস্থ্য বিভাগ ও অপরজনের স্বামী সেনাবাহিনীর মেজর। ৩ বোন স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়নরত । নজরুল ইসলামের স্ত্রী খালেদা ইয়াসমিন অনি পেশায় একজন চিকিৎসক ।

Development by: webnewsdesign.com