ব্রেকিং

x

শ্রীমঙ্গলে মুচিদের উচ্ছেদ করল পৌরসভা – প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি

বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ | ২:৫০ অপরাহ্ণ | 68 বার

শ্রীমঙ্গলে মুচিদের উচ্ছেদ করল পৌরসভা – প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি
ছবি: প্রতিনিধি

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের দলিত সম্প্রদায় ঋষিদের (মুচি) চৌমুহনা থেকে উচ্ছেদ করেছে শ্রীমঙ্গলে পৌরসভা। দীর্ঘদিন থেকে এই জায়গায় কাজ করে যাওয়া ঋষিদের উচ্ছেদ করায় বেকায়দায় পড়েছেন তারা। বুধবার দুপুরে জুতা সেলাই করার সরঞ্চাম নিয়ে কাজ করতে না পারায় চৌমুহনা এলাকায় অবস্থান কর্মসূচী করে তারা। এর আগে মঙ্গলবার সকালে এদের চৌমুহনা সংলগ্ন ড্রেনের উপর থেকে উচ্ছেদ করে দেয় শ্রীমঙ্গল পৌরসভা।

এই জায়গায় বসে জুতা সেলাই এর কাজ করতেন কৃষ্ণ পদ ঋষি। তিনি বলেন, আমরা এখানে প্রায় ২০ বছর ধরে জুতা সেলাই এর কাজ জীবিকা চালিয়ে আসছি। আমাদের বাপ দাদার এখানে বসে জুতা সেলাই করেছেন। এখন হঠাৎ করে পৌরসভার লোকজন আমাদের এখান থেকে উঠিয়ে দিয়েছে। আমরা রাস্তার পাশের ঢাকনা বিহীন ড্রেনের উপরে কাঠ দিয়ে মাচা করে বসে জুতা শেলাই এর কাজ করে আসছিলাম। প্রতিদিনের মতো কাজ করতে এসে অন্যরা দেখেন তাদের পৌরসভার লোকজন তাদের বসার মাচা তুলে নিয়ে গেছে।

এ অবস্থায় পরিবার পরিজন নিয়ে বেকায়দায় পড়া মুচিরা জানান, এখানে আমাদের জন্য তো রাস্তায় যানজট লাগে না। আমাদের এভাবে হঠাৎ করে উচ্ছেদ করায় পরিবার নিয়ে না খেয়ে থাকতে হবে। আমরা এখন কোথা বসে কাজ করবো বুঝতে পারছি না। মুচি সম্প্রদায় দাবী করেন উচ্ছেদের আগে আমাদের অন্য একটি জায়গা বসার ব্যবস্থা করে দেওয়া হোক, যেন আমরা আমাদের এই পেশাটি ধরে রাখটি পারি।

বুধবার শ্রীমঙ্গল শহরের স্টেশন সড়ক, মৌলভীবাজার সড়ক, হবিগঞ্জ সড়কসহ গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ঘুরে দেখা গেছে পুরো শহরের ফুটপাত দখল হয়ে আছে ভ্রাম্যমান বিক্রেতা ও বিভিন্ন দোকানদের মালামাল দিয়ে। অডিটরিয়ামের নতুন স্থাপনা নির্মানে খোদ পৌরসসভা ফুটপাত দখল করে রেখেছে। এ কারনে শহরের আসা লোকজন হাটাচলা করতে পারেন না।

এসব দোকানপাট উচ্ছেদ না করে কেন মুচিদের উচ্ছেদ করা হলো তা নিয়ে শহরের মানুষের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার মেয়র মহসিন মিয়া বলেন, চৌমুহনা এলাকাটিতে তাদের কারনে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। লোকজন গাড়ি থামিয়ে এখানে জুতা সেলাই করান। তবে লোকবল অভাবে পুরো শহরে উচ্ছেদ অভিযান করা সম্ভব হচ্ছে না বলে তিনি জানান।

তবে ঋষি সম্প্রদায়ের পূর্নবাসনের কোন পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, তারা তো এখানে ছিলোই অবৈধভাবে, এখানে তো তাদের বসার কথাই নেই।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, ঋষি সম্প্রদায়ের লোকজন আমার কাছে এসেছিলো। বিষয়টি পৌরসভার দায়িত্ব। তবে এটি বলবো পৌরসভা যদি এই জায়গা থেকে এদের উচ্ছেদই করে তাহলে তাদেরকে নতুন একটি জায়গা দিক। এই দলিত সম্প্রদায়ের লোকজনকে এভাবে উচ্ছেদ করা ঠিক হবে না।

Development by: webnewsdesign.com